মোবাইল ফোনে ব্যাক কভার ব্যবহার কতটা ক্ষতিকর জেনে নিন!

আমাদের মধ্যে হয়তোবা এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া যাবে না যে কিনা কখনোই তার মোবাইল ফোনে ব্যাক কভার ব্যবহার করেনি।
আসলে অন্যদের কথা আর কি বলবো পোস্ট দাতা নিজেই কখনো ব্যাক কভার ব্যবহার করেনি।

যাইহোক, আজকের এই পোস্টটি তাদের জন্য যারা নিজেদের মোবাইল ফোনে ব্যাক কভার ব্যবহার করে।

কেউ কেউ মোবাইলের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য, কেউবা মোবাইলের সুরক্ষার জন্য, আবার এদের মধ্যে অনেকেই শুধুমাত্র শখের বশত মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার করে থাকে।

অবশ্য আমি আমার আম্মুকেও শখের বশত মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার করতে দেখছি। কিন্তুু আমরা হয়তোবা অনেকেই জানি না যে, স্মার্ট ফোনে ব্যাক কভার ব্যবহার করা কতটা ক্ষতিকর। মোবাইলে ব্যাক কভার এর ব্যবহার যতটা না উপকার হয় তার চেয়ে বেশি ক্ষতি হয়।

মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক

  • মোবাইল অতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়া।
  • মোবাইলে দাগ পড়া।
  • ব্যাটারি নষ্ট হওয়া।
  • মোবাইল হ্যাং করা।
  • ধীরে ধীরে মোবাইলের গতি কমে যাওয়া।
  • ক্যামেরা ঘোলাটে হয়ে যাওয়া।
  • মোবাইল ফোন থেকে নির্গত হওয়া রেডিয়েশন এর মান কমে যাওয়া।

1. মোবাইল গরম হওয়া

মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার করলে প্রথম যে ক্ষতিটি হয় তা হলো ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়া। আপনি যখন আপনার মোবাইল ফোনটি অধিক সময় পর্যন্ত ব্যবহার করবেন, অর্থাৎ মোবাইলে গেম খেলবেন, ভিডিও দেখবেন,কারো সাথে চ্যাট বা ফোনে কথা বলবেন বা ক্যামেরা চালু করে ছবি তুলবেন তখন আপনার মোবাইল গরম হয়ে যায়।

স্বাভাবিক ভাবে যেকোনো মোবাইল ফোনই ব্যবহার করলে এটি কিছুটা গরম হয়ে যায়। আবার কিছুক্ষন ব্যবহার না করে রেখে দিলে এটি পূর্বের মতোই ঠান্ডা অর্থাৎ স্বাভাবিক হয়ে যায়।

কিন্তুু আপনি যদি মোবাইল ফোনে ব্যাক কভার লাগিয়ে সেটি ব্যবহার করেন তাহলে এই ব্যবহারের ফলে মোবাইলের তাপমাত্রা অস্বাভাবিক বেড়ে যায়। এবং ব্যাক কভার দ্বারা চারদিক থেকে আবদ্ধ থাকায় এই তাপমাত্রা মোবাইলের উপর চাপ সৃষ্টি করে এবং মোবাইলের নানাবিধ ক্ষতি সাধন করে।

2. ব্যাটারি নষ্ট হওয়া

যেহেতু মোবাইলে ব্যাক কভার থাকার কারনে মোবাইলে বৃদ্ধি পাওয়া অস্বাভাবিক তাপমাত্রা বাহিরে বের হতে পারে না , তাই এই তাপমাত্রা মোবাইলের উপর মারাত্মক চাপের সৃষ্টি করে।

এতে মোবাইল ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। মোবাইল ব্যাটারি ফুলে যায় এবং কখনো কখনো সেটি ব্লাস্ট হয়ে মারাত্মক দূর্ঘটনার সৃষ্টি করতে পারে।

যেমন ধরেন, সেখান থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে। তাই মোবাইলের তাপমাত্রা স্বাভাবিক রাখার জন্য ব্যাক কভার ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। যদিও আমি কখনো ব্যাক কভার ব্যবহার করি নি, তবে আমি আমার চারপাশের কিছু লোককে এই ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হতে দেখেছি।

3. মোবাইলে দাগ পড়া

আমরা ব্যাক কভার ব্যবহার করে থাকি মোবাইলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি, সুরক্ষা কিংবা শখের বশত। আমরা এর ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে না জেনেই এটি ব্যবহার করি।

মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার করলে এর ব্যাক সাইডে ধীরে ধীরে দাগ পড়তে শুরু করে। ফলে মোবাইলের স্বাভাবিক সৌন্দর্য হারিয়ে যায়।

যেহেতু দাগ পড়ে মোবাইলের ব্যাক সাইডের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায় তাই ব্যাক কভার ছাড়া এটি ব্যবহার করা সম্ভব হয় না। তাই প্রথম থেকেই মোবাইলে এই ব্যাক কভার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

এতে মোবাইলে দাগ পড়বে না এবং মোবাইলের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা অটুট থাকবে। এতে আর্থিক সঞ্চয় হবে এবং মোবাইল নানাবিধ ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে।

4. মোবাইল হ্যাং করা ও ধীরে ধীরে গতি কমে যাওয়া

যেহেতু ব্যাক কভার এর কারণে গরম হওয়া মোবাইলের তাপমাত্রা বাহিরে বের হতে পারে না, তাই এই তাপমাত্রা মোবাইলের ডিভাইস গুলোর উপর মারাত্মক প্রভাব বিস্তার করে। ফলে মোবাইলের ডিভাইস গুলো ধীরে ধীরে তার কার্য ক্ষমতা হারিয়ে অচল হয়ে পড়ে।

এবং মোবাইল ধীরগতি সম্পন্ন হয়ে যায়। এছাড়াও মোবাইল প্রচন্ড হ্যাং করতে থাকে এবং ধীরে ধীরে মোবাইল ফোন মৃত ফোনে রুপ নেয়।

অর্থাৎ মোবাইলটি সম্পুর্ন রুপে নষ্ট হয়ে যায়।

5. মোবাইল থেকে নির্গত হওয়া রেডিয়েশনের মান কমে যাওয়া

আমরা জানি যে, যেকোনো মোবাইল ফোন থেকেই রেডিয়েশন নির্গত হয়। যা আমাদের দেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। আর ব্যাক কভার ব্যবহার করলে মোবাইল থেকে নির্গত হওয়া রেডিয়েশনের মান কমে যায়। যদিও এটি আমাদের জন্য ভালো কিন্তুু মোবাইলের জন্য না।

কারন মোবাইল থেকে নির্গত হওয়া রেডিয়েশনের সাথে মোবাইলের নেট কানেকশন ওতপ্রোতভাবে জড়িত। অর্থাৎ মোবাইল থেকে যত বেশি রেডিয়েশন নির্গত হবে এর নেট কানেকশন তত বেশি স্ফ্রীড হবে।

কিন্তুু আমরা যদি মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার করি তাহলে রেডিয়েশন কম নির্গত হবে ফলে মোবাইলের নেট কানেকশন দুর্বল থাকবে। তাই যদি আপনি আপনার মোবাইলের নেট স্পিড বেশি চান তাহলে মোবাইলে ব্যাক কভার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

6. মোবাইলে চার্জ কম হওয়া

মোবাইল প্রচন্ড গরম হলে এর কার্য ক্ষমতা স্থীর হয়ে যায়। ফলে মোবাইলে চার্জও হয় ধীরগতিতে। তাই মোবাইল চার্জ দেওয়ার সময় ব্যাক কভার ব্যবহার করবেন না।

এতে আপনার মোবাইল ফোনটি অধিক সুরক্ষিত ও দীর্ঘদিন টেকসই হবে।