মোবাইল ফোন দ্রুত চার্জ করার ৫টি উপায়।

মোবাইল ফোন হলো বর্তমান যুগের যোগাযোগের সর্বোত্তম মাধ্যম। বর্তমানে এটি মানুষের একাকিত্বের সঙ্গী হয়ে উঠেছে। আমরা মোবাইল ফোন ছাড়া এক মুহূর্ত ও ভাবতে পারি না। মোবাইল ফোন এখন এতটাই বিস্তার লাভ করেছে যে, ছোট, বড়, শিশু, বৃদ্ধ সবাই ব্যাবহার করে।

এছাড়া আমরা কোথায় ও ঘুরতে বের হলে ঐসব জায়গার ছবি মোবাইলে ধারণ করে স্মৃতি হিসেবে সংরক্ষণ করে রাখি। আমাদের প্রত্যেকের হাতে একটি করে মোবাইল ফোন রয়েছে। অন্তত প্রত্যেকের হাতে একটি করে না থাকলেও সবার পরিবারে বা ঘরে একটি করে মোবাইল ফোন রয়েছে। যেহেতু মোবাইল ফোন ছাড়া আমরা এক মুহূর্ত ও কল্পনা করতে পারি না, তাই মোবাইলের চার্জ শেষ হয়ে গেলে আমাদের সবার মুখে একটা বিরক্তিকর ভাব চলে আসে।

আমরা সকলেই চার্জ শেষ হওয়ার পর মোবাইল ফোনটি পুনরায় আবার চার্জে দেই। কিন্তু দেখা যায় মোবাইল চার্জ হতে প্রচুর সময় লাগে অর্থাৎ ১ হতে ২ ঘন্টা বা এর চেয়ে ও বেশি সময় লাগে। তাই চলুন জেনে নেই কিভাবে মোবাইল ফোন দ্রুত চার্জ করা যায়ঃ

1. মোবাইলের ডাটা ও ওয়াইফাই কানেকশন অফ করে

মোবাইলের চার্জ দ্রুত করতে চাইলে অবশ্যই এর ডাটা ও ওয়াইফাই কানেকশন অফ করে রাখতে হবে। আমরা যারা মোবাইল ফোন চালাই তারা  নিশ্চয়ই লক্ষ্য করছি যে, ডাটা ও ওয়াইফাই ( data & wifi) চালু রেখে কোনো ধরনের অডিও, ভিডিও বা কারো সাথে কথা বলা ও টেক্সট করলে কিংবা ডাটা ও ওয়াইফাই খুলে মোবাইল রেখে দিলে মোবাইল অত্যধিক গরম হয়ে যায়।

যদি ও ওয়াইফাই চালু রাখলে মোবাইল তেমন গরম হয় না,  তবে ডাটা চালু রাখলে মোবাইল গরম হয়ে যায়। ডাটা ও ওয়াইফাই (Data & wifi) দুটোই চালু রাখলে মোবাইলের চার্জ ধীরে ধীরে কমে যায়। তাই ডাটা ও ওয়াইফাই  চালু রেখে মোবাইল ফোন চার্জ দিলে মোবাইল ফোনটিতে খুব ধীরে ধীরে চার্জ হবে।

সেই জন্য মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার আগে এর ডাটা ও ওয়াইফাই কানেকশন (data & wifi connection) বন্ধ করে দিতে হবে। ডাটা এবং ওয়াইফাই ছাড়া ও ব্লুটুথ, হটস্পট, লোকেশন ইত্যাদি বন্ধ করে দিতে হবে। এতে আপনার মোবাইল ফোন দ্রুত চার্জ হবে।

2. অ্যাপস চালু থাকলে বন্ধ করা

চার্জ দেওয়া সময় চার্জারের সাথে আপনার মোবাইলটি সংযুক্ত করার আগে দেখে নিন মোবাইলে কোনো অ্যাপস চালু আছে কিনা! যদি চালু থাকে তবে তা বন্ধ করে দিন। কখনো কখনো আমরা মোবাইল ফোন দিয়ে খেলার সময় বা কোনো কাজ করার সময় যদি দেখি মোবাইলের চার্জ কমে গেছে তাহলে দ্রুত গিয়ে চার্জারের সাথে মোবাইল ফোনটি সংযুক্ত করি এবং ঐ কাজ ঐখানে রেখেই চার্জ দেই।

যার ফলে মোবাইলে ঐ কাজ ও খেলা লোড হতে থাকে। এরফলে  মোবাইল ফোন খুব ধীরে ধীরে চার্জ হয়। তাই মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার আগে অবশ্যই মোবাইলে থাকা অ্যাপস গুলো সম্পূর্ণ ভাবে বন্ধ করে দিতে হবে।

3. এয়ার প্লেন মোড চালু করে রাখা

মোবাইলটি চার্জ দেওয়ার আগে এর এয়ার প্লেন মোডটি চালু করে রাখবেন। এটি বাহিরের সকল সংযোগ থেকে আপনার ফোনটি মুক্ত রাখবে এবং দ্রুত চার্জ হতে সাহায্য করবে। অনেক সময় আমরা মোবাইল চার্জে দিয়ে চলে যাওয়ার পর বিভিন্ন ফোন ও মেসেজ আসে। ফলে মোবাইলের আলো অন হয়ে যায় এবং মোবাইলটি অন অর্থাৎ চালু থাকার কারণে মোবাইলের চার্জও দেরিতে হয়।

যদি আপনি চার্জে দেওয়ার আগে মোবাইলের এয়ার প্লেন মোডটি অন করে রাখেন,  তবে মোবাইলে থাকা সকল ওয়্যারলেস রেডিও বন্ধ হয়ে যাবে। এতে মোবাইল ফোনে কল করা, ওয়েব ব্রাউজ করা বা জিনিস পত্র ব্যাবহার করার সুবিধা বন্ধ হয়ে যাবে এবং মোবাইলে দ্রুত চার্জ হবে।

4. চার্জে রেখে মোবাইল না দেখা

আমাদের সবারই একটা স্বভাব আছে, আর তা হলো মোবাইল ফোন দিয়ে কোনো ছবি বা নাটক, কিংবা কোনো বন্ধুর সাথে কথা বলা বা চ্যাট করার সময় মোবাইলের চার্জ শেষ হয়ে আসলে আমরা মোবাইল চার্জে রেখেই ফ্রেন্ড বা বন্ধুর সাথে কথা বলি বা নাটক দেখি। এই চার্জে রেখে মোবাইল দেখার কারণে একদিকে যেমন আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, ঠিক তেমনি চার্জ হতে প্রচুর সময় লাগবে।

যদি আপনি মোবাইল চার্জ করতে চান তাহলে ধৈর্য্য ধরে গান, ছবি, নাটক এমনকি বন্ধুদের সাথে কথা বলা বন্ধ করে সুন্দর ভাবে মোবাইলটি চার্জে দিয়ে রাখবেন। এতে ৪০- ৬০ মিনিটের মধ্যেই আপনার মোবাইল ফোনটি চার্জ হয়ে যাবে এবং পূনরায় আপনি গান, ছবি, নাটক ও বন্ধুদের সাথে কথা বলতে পারবেন।

ফলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি দীর্ঘ সময় ভালো থাকবে। আর যদি আপনার কথা বলা বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয় তবে কিছুক্ষণ কথা বলে সকল ট্যাব ক্লোজ বা বন্ধ করে মোবাইলটি পূনরায় চার্জ দিবেন।

5. মোবাইল বন্ধ করে চার্জে দেওয়া

মোবাইল চার্জ দেওয়ার অন্যান্য উপায় গুলোর মধ্যে মোবাইল ফোন বন্ধ করে চার্জে দেওয়াই সবচেয়ে ভালো। কারণ এতে করে আপনার Data & Wifi connection খোলা থাকলেও চার্জ হওয়ার উপর এর কোনো প্রভাব পড়বে না। মোবাইল ফোন বন্ধ করে চার্জে দিলে সকল ধরনের কানেকশন বন্ধ হয়ে যাবে।

অর্থাৎ ওয়্যারলেস, জিপিএস, ব্লুটুথ, হটস্পট, প্লাস লাইট, লোকেশন এমনকি বিভিন্ন ধরনের কল বা মেসেজ আসা বন্ধ থাকবে। মোবাইলের সকল লোড বন্ধ থাকার কারণে মোবাইলে আভ্যন্তরিন কোনো চার্জ ক্ষয় হবে না। এবং মোবাইলটি খুব দ্রুত ও অল্প সময়ের মধ্যে চার্জ হবে।

তবে যারা ঘড়ি বা অ্যালাম শোনার জন্য মোবাইলের উপর নির্ভরশীল তারা মোবাইল অপ করবেন না। বরং মোবাইলে থাকা অন্যান্য জিপিএস কানেকশন গুলো বন্ধ করে দিবেন।

যদি আপনি অল্প সময়ের মধ্যে মোবাইলে চার্জ দিতে চান তবে উপরে থাকা ৫টি নিয়ম আপনাকে মেনে চলতে হবে। আশা করি এতে স্বাভাবিকের তুলনায় আপনার ফোনটি খুব দ্রুতই চার্জ হবে।

আরও পড়ুনঃ

পুরাতন মোবাইল কেনার সময় এই ১০টি ভূল ভূলে ও করবেন না 

ভূলে ও এই ৭ ধরনের দোকান থেকে মোবাইল ফোন কিনবেন না

এখনি এই ৯টি অ্যাপস আপনার মোবাইল থেকে ডিলিট করুন 

মোবাইল ফোন রুট করা উচিত (সুবিধা ও অসুবিধা)

 

Leave a Comment