পুরুষের তুলনায় স্মার্টফোন ব্যাবহারে নারীরা এগিয়ে

স্মার্টফোন ব্যাবহারে পুরুষের তুলনায় নারীরা এগিয়ে আছে।

প্রযুক্তির ব্যাবহারের এই যুগে সব দিক দিয়ে নারীরা পিছিয়ে থাকলে ও স্মার্টফোন ব্যাবহারে নারীরা পুরুষের তুলনায় বেশ এগিয়ে আছে।

পুরুষের তুলনায় স্মার্টফোন ব্যাবহারে নারীরা এগিয়ে থাকার প্রথম কারণ হলো- নারীরা চায় সৌখিনতা, রূপসজ্জা ও ফ্যাশন।আর সেটি হোক কাপড়চোপড়, বিভিন্ন রকমের কসমেটিক, ঘরের সাজসজ্জা, হাতের ব্যাগ, মোবাইল ফোন কিংবা যে কোনো কিছু।

কিন্তু দেখা যায় বর্তমানে ধনী কি গরীব প্রায় প্রতি নারীর হাতে একটা স্মার্টফোন আছে।  আর স্মার্টফোন ছাড়া নারীরা যেন অচল। স্মার্টফোন ব্যাবহার নারীরা ফ্যাশন হিসাবে ও পরিচিত লাভ করেছে। ফলে সব নারীরা চায় হাতে একটা স্মার্টফোন রাখতে।

পুরুষের তুলনায় স্মার্টফোন ব্যাবহারে নারীরা এগিয়ে থাকার দ্বিতীয় কারন হলো – প্রবাসীদের স্ত্রীরা যোগাযোগের জন্য স্মার্টফোন ব্যাবহার করে। বাংলাদেশের প্রায় ১৩ মিলিয়ন বা ১ কোটি ৩০ লক্ষ লোক বিদেশে থাকে।

আর তাদের স্ত্রীগন বিদেশি স্বামীর সাথে যোগাযোগ করতে বেশির ভাগ স্মার্টফোন ব্যাবহার করে। এতে নারীরা স্মার্টফোন ব্যাবহারে পুরুষের চেয়ে এগিয়ে আছে।

শুধু নারীরা কেন পুরুষেরা ও স্মার্টফোন ব্যাবহার করছে সমানতালে। অনেক পুরুষ নারীদের মতো মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে ফ্যাশন হিসেবে। মনে হয় একটি স্মার্টফোন হাতে থাকলে সে অনেক কিছু।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো ( বিবিএস) আইসিটি বিষয় নিয়ে ব্যাক্তি ও খানা পর্যায়ে আইসিটি ব্যাবহারের সুযোগ ও প্রয়োগ নিয়ে এক জরিপ পরিচালনা করেন। ঐ  জরিপে দেখা যায়  দেশে মোট ৪ কোটি ১০ লক্ষ ৯৩ হাজার ২০৫ টি পরিবারের মোবাইল ফোন রয়েছে। যা দেশের মোট পরিবারের ৯৭.৪ শতাংশ।  

মোবাইল ফোন ব্যাবহারকারীর মধ্যে ৫২.১ শতাংশ মানুষ স্মার্টফোন ব্যাবহার করছে। আর এই স্মার্টফোন ব্যাবহারকারীর মধ্যে নারীরা পুরুষের তুলনায় এগিয়ে আছে। নারী পুরুষের মধ্যে নারীরা স্মার্টফোন ব্যাবহার করছে প্রায় ৫৯.৯০ শতাংশ। অন্যদিকে পুরুষেরা ব্যাবহার করছে প্রায় ৫০.১০ শতাংশ। 

এতে দেখা যায় নারীরা পুরুষের তুলনায় স্মার্টফোন ব্যাবহার করে প্রায় ৯.৮০ শতাংশ বেশি। অর্থাৎ পুরুষের তুলনায় নারীরা স্মার্টফোন ব্যাবহারে এগিয়ে।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ভেদে ও  স্মার্টফোন ব্যাবহারকারীদের মধ্যে নারীরা পুরুষের তুলনায় এগিয়ে। দেশে সবচেয়ে বেশি স্মার্টফোন ব্যাবহৃত হয় ঢাকায়। ঢাকায় স্মার্টফোন ব্যাবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৬৯.০৩ শতাংশ। এরপর স্মার্টফোন ব্যাবহারের দিক থেকে দ্বিতীয় স্হানে আছে চট্টগ্রাম।

চট্টগ্রামে স্মার্টফোন ব্যাবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৬৩.০০ শতাংশ। এরপর পর্যায়ক্রমে আছে সিলেট ৫৬.০১ শতাংশ , খুলনায় ৪৯.০০ শতাংশ, ময়মনসিংহে ৩৯.০৫ শতাংশ,  বরিশালে ৩৬.০৫ শতাংশ, রংপুরে ৩৪.০১ শতাংশ, রাজশাহীতে ৩২.০০ শতাংশ।

এছাড়া মোবাইল ফোন ব্যাবহারে নারীদের তুলনায় পুরুষেরা এগিয়ে। কারণ বেশীর ভাগ পুরুষেরা মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে শুধু যোগাযোগের জন্য। যার জন্য স্মার্টফোনের প্রয়োজন হয় না।

সবশেষে বলা যায়, নারীরা বেশীর ভাগ স্মার্টফোন ব্যবহার করে স্মার্ট হওয়ার জন্য, ফ্যাশন করার জন্য। এরপর ও বলা যায় অনেক নারী তাদের প্রয়োজনে স্মার্টফোন ব্যাবহার করে থাকে। এরফলে পুরুষের তুলনায় স্মার্টফোন ব্যাবহারে নারীরা এগিয়ে আছে।

আরও পড়ুন:

এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোনের জন্য কয়েকটি ফ্রি অ্যাপস

মোবাইলের ওয়াইফাই স্পিড বাড়াবেন কিভাবে জেনে নিন 

স্মার্টফোন যেভাবে ব্যাবহার করলে চোখের ক্ষতি হয় না 

স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ করে যে অ্যাপগুলো